খালেদা জিয়ার চিকিৎসা আপাতত বাসায়: ডা. জাহিদ

0
0

ভোলা নিউজ২৪ডটকম।। মেডিক্যাল বোর্ডের তত্ত্বাবধানে বাসায় রেখে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা হবে বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন।

বুধবার (৩১ আগস্ট) সন্ধ্যায় হাসপাতাল থেকে খালেদা জিয়া বাসায় পৌঁছানোর পর ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন আরও বলেন, হাসপাতালে কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মেডিক্যাল বোর্ড তার (খালেদা) চিকিৎসায় কিছু পরিবর্তন করেছেন। আপাতত তার কিছু উন্নতি দেখা যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে মেডিক্যাল বোর্ড তাকে বাসায় যেতে ছুটি দিয়েছেন।

‘‘হাসপাতালের ছাড়পত্রে বলা হয়েছে যে, তার যে চিকিৎসা চলছে, তাতে তাকে সার্বক্ষণিক মেডিক্যাল বোর্ডের সদস্যদের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে থাকতে হবে। আলহামদুলিল্লাহ তিনি আজকে একটু ভালো বোধ করার কারণেই আপাতত হাসপাতাল থেকে ‘রিলিজ’ দেওয়া হয়েছে। ’’ যোগ করেন ডা. জাহিদ।

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় বিএনপি নেতা আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, নাজিম উদ্দিন আলম, কামরুজ্জামান রতন, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল ও ডা. আবদুল্লাহ আল মামুন উপস্থিত ছিলেন।

বেসরকারি এভারকেয়ার হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক অধ্যাপক শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে একটি মেডিক্যাল বোর্ডের তত্ত্বাবধায়নে খালেদা জিয়া চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সবশেষ গত ১১ জুন এভারকেয়ার হাসপাতালে খালেদা জিয়ার হৃদপিণ্ডের ব্লক অপসারণ করে একটি ‘স্টেন্ট’ বসানো হয়েছিল।

৭৮ বছর বয়সী খালেদা জিয়া বহু বছর ধরে হৃদপিণ্ডের রক্তনালীতে ব্লক, আর্থ্রাটিস, ডায়াবেটিস, কিডনি, ফুসফুস, চোখের সমস্যাসহ নানা জটিলতায় ভুগছেন।

২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজা হলে কারাগারে যেতে হয় সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে। পরে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলাতেও তার সাজার রায় আসে।

দেশে করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর খালেদা জিয়ার পরিবারের আবেদনে ২০২০ সালে ২৫ মার্চ তাকে নির্বাহী আদেশে সাময়িক মুক্তি দেয় সরকার। শর্ত দেওয়া হয়, তাকে দেশেই থাকতে হবে।

কারাগার থেকে বেরিয়ে খালেদা জিয়া গুলশানের বাসা ফিরোজায় ওঠেন, এখন সেখানেই তিনি থাকছেন। ২০২১ সালে এপ্রিলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর অসুস্থতার কারণে খালেদা জিয়াকে ছয় দফায় ঢাকার বসুন্ধরায় এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিতে হয়েছে।

গত বছর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর তার ‘পরিপাকতন্ত্রে’ রক্তক্ষরণ এবং লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত হওয়ার কথাও জানান চিকিৎসকরা।

LEAVE A REPLY