চরফ্যাশনে মাদ্রাজ ইউনিয়নে শিশু বিয়ে মুক্ত ওয়ার্ড ঘোষণা

0
510
dav

চরফ্যাশন প্রতিনিধি

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার মাদ্রাজ ইউনিয়নকে শিশু বিয়ে মুক্ত করার লক্ষ্যে নিয়ে   ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের (চর নাজিমুদ্দিন) গ্রামকে শিশু বিয়ে মুক্ত ওয়ার্ড হিসাবে ঘোষণা করা হয়। একই সাথে এই ওয়ার্ডে আর যাতে বাল্যবিয়ে না হয় তার জন্য সকলে মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে শপথ নেয় এলাকাবাসী।

ইউনিসেফের সহায়তায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা কোস্ট ট্রাস্টের সমন্বিত শিশু বিবাহ প্রতিরোধ কর্মসূচী (আইইসিএম) প্রকল্পের আয়োজনে সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) বিকালে ইউনিয়নের হিন্দু পল্লী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে শিশু বিয়ে মুক্ত ওয়ার্ড উন্মুক্ত ঘোষনা অনুষ্ঠিত হয়। এতে মাদ্রাজ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল হক জমাদ্দার এসময় তিনি স্থানীয় কয়েকশ অভিভাবক ও কিশোর-কিশোরীদের শিশু বিয়ে রোধে শপথ বাক্য পাঠ করান।

উন্মুক্ত ঘোষনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন চরফ্যাশন উপজেলার নির্বাহী অফিসার মো: রুহুল আমিন।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কোস্ট ট্রাস্টের (আইইসিএম) প্রকল্পের প্রকল্প সমন্বয়কারী মিজানুর রহমান। এসময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট খান মো: আব্দুল্লাহ আল মামুন, চরফ্যাশন থানার (ওসি) তদন্ত পুলিশ পরির্দশক কার্তিক চন্দ্র বিশ্বাস, উপজেলা স্বাস্থ্য প্রকৌশলী মো: কামাল হোসেন, চর মাদ্রাজ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আবব্দুল হাই মিয়া, সহ-সভাপতি নুর মো: খন্দকার, সাংগঠনিক সম্পাদক তরিকুল ইসলাম মাষ্টার।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন আইইসিএম প্রকল্পের জেলা এডুকেশন অফিসার মো: সেলিম মিয়া, চরফ্যাশন উপজেলা ট্রেনিং এন্ড মনিটরিং অফিসার জি এম মনিরুজ্জামান এডভোকেসি ও মিডিয়া অফিসার আদিল হোসেন, উপজেলা সমাজকর্মী নুরুন নাহার স্বপ্না, উপজেলা এলজিসি অফিসার মো: রফিকুল ইসলাম, ওয়াশ ইঞ্জিনিয়ার মো: শামসুদ্দিন, ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ওলিউল্ল্যাহ সহ সংরক্ষিত নারী ইউপি সদস্য, শিক্ষক, সমাজকর্মী, স্থানীয় ঈমাম, কাজী, কিশোর-কিশোরী ক্লাবের সদস্যরা এসময় উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন উপজেলা সমাজকর্মী সঞ্জয় কুমার।

dav

অনুষ্ঠানে শিশু বিয়ে মুক্ত ওয়ার্ড গড়ার প্রত্যয় নিয়ে এক গন সমাবেশে মধ্যে দিয়ে চর নাজিমুদ্দিন গ্রামকে শিশু বিয়ে মুক্ত রাখতে ও শিশুর সর্বত্র স্বার্থ রক্ষার্থে একযোগে সবাই কাজ করতে শপথ বাক্য পাঠ করেন ।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, শিশু বিয়ে আমাদের সমাজের সামাজিক ব্যাধিতে রুপান্তর হয়েছে। এর ফলে প্রতি নিয়ত সমাজে নারী নির্যাতন,যৌতুক এর মতো সামাজিক অবক্ষয় হচ্ছে।
ফলে সমাজের মধ্যে এক ধরনের সমস্য লেগেই রয়েছে। বর্তমান সরকার  শিশু বিয়ে মুক্ত দেশ গড়তে বিভিন্ন পদক্ষেপ হাতে নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।

তাই আমাদের সকলকে শিশু বিবাহকে না বলতে হবে। শিশু বিবাহ সমাজ, জাতি তথা  দেশকে ক্ষতিগ্রস্ত  করে। শিশু বিবাহ এক ধরনের অপসংস্কৃতি। এই অপসংস্কৃতি থেকে আমাদের  বের হয়ে আসতে হবে। সমাজের   প্রতিটি ব্যক্তি যার যার অবস্থান থেকে এগিয়ে  এসে  শিশু বিবাহ রোধ করার জন্য। কারন শিশু বিবাহ পরিবার দেশ, সমাজ ও জাতির জন্য অভিশাপ। এর বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। তাই সবাইকে ঐক্য বদ্ধভাবে বাল্য বিবাহ রোধ করতে হবে। প্রয়োজনে শিশুর সহায়তায় ১০৯৮ বা ৯৯৯ এর সহায়তার পাশাপাশি বাল্য বিয়ে রোধে স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতা নেয়ার কথা বলা হয়।

LEAVE A REPLY