বোরহানউদ্দিনে নার্সের ভূল চিকিৎসায় গর্ভবতী নারী মৃত্যু সজ্জায়

0
157

স্টাফ রিপোর্টার ॥
বোরহানউদ্দিনে নার্সের ভূল চিকিৎসায় গর্ভবতী নারী মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। বোরহানউদ্দিন উপজেলার জয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের হাসু হাওলাদার বাড়ির রুবেল এর গর্ভবতী স্ত্রী রোকেয়া স্থানীয় অবসরপ্রাপ্ত নার্স ফরিদা তার নিজ বাড়িতে ভূল চিকিৎসা (অপারেশন) করে গর্ভের চার মাসের বাচ্চা নষ্ট করে দেয়। অসুস্থ রোগী রোকেয়া পর্যাপ্ত রক্ত ক্ষয়ের ফলে মৃত্যুর দিকে ঝূকে পড়ছে।

---
রোগীর বোনের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার বোন রোকেয়া বোরহানউদ্দিনের হাওলাদার মার্কেটে অবস্থিত নার্স ফরিদার বাসায় তার রেগুলার চেকাপ করানোর জন্য গেলে ফরিদা নার্স বলে বাচ্চার অবস্থা বেশি ভালো না ডিএনসিসি করা লাগবে। তখন আমরা ৫ হাজার টাকা কন্টাক্টে রাজি হই। কথা ছিলো একজন ডক্টর উপস্থিত থেকে এই অপারেশনটা করা হবে। কিন্তু কোন ডাক্তারকে না এনেই নার্স ফরিদা অপারেশন করে। তাতে আমার বোনের পর্যাপ্ত রক্তক্ষরণ হয়। অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের ফলে আমার বোনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হয়ে পড়ে। পরে নার্স ফরিদা রোগীকে বোরহানউদ্দিন হাসপাতালে নিয়ে ব্লাড দিতে বলে। কিন্তু রোগীর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক বোরহানউদ্দিন হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দিতে রাজি হয়নি। ফরিদা নার্স বিষয়টি জানাজানি না করার জন্য রোগীকে ভোলায় এক ডায়াগনেস্টিকে রেখে পালিয়ে যায়। এখন আমার বোনের অবস্থা এতোটাই আশঙ্কাজনক যে তাকে ভোলার কোন ডাক্তার দেখছে না, তাকে চিকিৎসার জন্য বরিশালে নিয়ে যেতে হবে।
এ বিষয় অভিযুক্ত নার্স ফরিদার সাথে মোবাইল ফোনে কথা বললে তিনি বলেন, এরকম কোন বিষয় হয়নি, সবি মিথ্যে ও বানোয়াট, আমাকে হয়রানি করার চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY