মাছ ধরা নিষিদ্ধ’র ২২দিন পর ব্যস্ত ভোলার জেলেরা আটক ৬০৬ জন

মাছ ধরা নিষিদ্ধ’র ২২দিন পর ব্যস্ত ভোলার জেলেরা আটক ৬০৬ জন

0
83

মো: আফজাল হোসেন ।। ২২দিন মাছ ধরা বন্ধ থাকার পর জাল হাতে পুনরায় মেঘনায় নেমেছে জেলেরা। সকল জেলেদের মাঝেই একটা উৎসবের আমেজ নিয়ে ধরছে উলিশ। জেল-জরিমানা করা হয়েছে ৬০৬জনকে আর জরিমানা করা হয়েছে প্রায় ১৬লাখ টাকা। আর আলোচিত ছিলো ম্যাজিষ্ট্রেট ও মৎস্য কর্মকর্তাদের উপর জেলেদের হামলা।

গতকাল খুব ভোর থেকেই জেলেরা নৌকা নিয়ে নদীতে মাছ স্বিকারে নেমে পড়েছে। আগ থেকেই জেলেদের মাঝে একটা প্রস্ততি ছিলো বেশ ভালোই। এবছর ইলিশের আকার বড় থাকায় জেলেদের মাঝ মাছ ধরার আগ্রহ উৎসাহ ছিলো অনেকটা বেশি। যে কারনে মাছ ধরা বন্ধর মধ্যেই অভিযান দলের উপর ২বার হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও মৎস্য কর্মকর্তাসহ পুলিশ সদস্যদের আহতর ঘটনা ঘটেছে। লালমোহন বদরপুর তেতুলিয়া নদীতে অভিযানের দলের উপর হামলার সময় পুলিশ নিজেদেরকে রক্ষায় গুলি ছুড়েছে। এছাড়া ভোলা সদর উপজেলার ভোলার চর নামক স্থানের হামলা ভাবিয়ে তুলেছে প্রশাসনকে। এবছর প্রশাসনের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে বেশি। যা নিয়ে চিন্তিত প্রশাসন।

অপরদিকে অভিযানে গত ২২দিনে ৬০৬ জন জেলেকে আটকের পর বিভিন্ন মেয়াদে জেল-জরিমানা দেয়া হয়েছে। ৬ লাখ ২১ হাজার মিটার জাল ও প্রায় ২হাজার কেজি ইলিশ জব্দ করার হয়েছে। ৩৪৯টি মামলা হয়েছে জেলেদের বিরুদ্ধে। জরিমানা ও নৌকা নিলামে আদায় হয়েছে ১৫লাখ ৮৫হাজার টাকা। অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে ৩৫৫টি আর মোবাইল কোর্ট হয়েছে ১৭৯টি। ৬লাখ ২১হাজার মিটার জাল জব্দ করা হয়েছে।

এবিষয় জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো: আজহারুল ইসলাম বলেন,এবছর অভিযান সফল হয়েছে। এঘটনায় এখনো আটক করা মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলার রয়েছে যা নিলাম দেয়ার বাকী রয়েছে।

ভোলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক অভিযানকে সফল উল্লেখ করে হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তবে মা ইলিশ রক্ষায় অভিযান সফলতার সাথে কাজ করায় অভিযানে থাকা সকলকেই ধন্যবাদ জানান।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY