এবার লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগ হবে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক

0
529

ভোলা নিউজ ২৪ডটনেটঃ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগে বর্তমানে বহুনির্বাচনি ও মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু এবার থেকে এর সঙ্গে যুক্ত হতে যাচ্ছে লিখিত পরীক্ষা। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় আগামীকাল বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) এক সভায় এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হতে যাচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক সংকট নিরসনে গত ৩০ জুলাই এই ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৮’ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। মোট ২৪ লাখ ১ হাজার ৫৯৭টি আবেদন পড়েছে। আগামী ২৬ অক্টোবরে শিক্ষক নিয়োগের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা আয়োজন হতে পারে বলে সূত্র জানিয়েছে।

জানা গেছে, বর্তমানে শুধু বহুনির্বাচনি ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করা হয়ে থাকে। কিন্তু উচ্চ পর্যায় থেকে অভিযোগ এসেছে শুধুমাত্র বহুনির্বাচনি ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে যোগ্য প্রার্থী বাছাই করা কঠিন। ফলে এর সঙ্গে লিখিত পরীক্ষাও যুক্ত করা প্রয়োজন। এর ভিত্তিতেই প্রথমে বহুনির্বাচনি পরীক্ষা হবে, এরপর সেখান থেকে উত্তীর্ণদেরকে লিখিত পরীক্ষা দেওয়ার জন্য তালিকা প্রকাশ করা হবে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মধ্যে থেকে মৌখিক পরীক্ষা দিয়েই চূড়ান্ত প্রার্থী নির্বাচন করা হবে।

সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, নিয়োগ পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে আয়োজন ও প্রশ্নফাঁস রোধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পরীক্ষা কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানো হবে এবং ২০ সেটেরও বেশি প্রশ্নপত্রের সেট তৈরি করা হতে পারে।

এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে কাল বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম আল হোসেনের সভাপতিত্বে মন্ত্রণালয়ের সভা ডাকা হয়েছে। সেখানে নিয়োগ পরীক্ষার ডিজিটাল পদ্ধতিতে প্রশ্নপত্র প্রণয়ন,ওএমআর ফরম ডিজাইন ও মূল্যায়ণ, পরীক্ষার সময়সূচি, ফলাফল প্রক্রিয়াকরণ ও প্রকাশ এবং পরীক্ষা কেন্দ্রের আসন বিন্যাসের পদ্ধতি উন্নয়ন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) গিয়াসউদ্দিন আহমেদ বলেন,’প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পরীক্ষা পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনার সিদ্ধান্ত রয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে চূড়ান্ত বৈঠক রয়েছে।‘

LEAVE A REPLY